রবিবার, মার্চ ৩, ২০২৪
মহাদেবপুরের সড়কে এক বছরে নিহত ৭৮
মহাদেবপুরের সড়কে এক বছরে নিহত ৭৮

মহাদেবপুরের সড়কে এক বছরে নিহত ৭৮

প্রতিষিদ্ধ প্রতিবেদক
প্রকাশের সময় : May 30, 2022 | রাজশাহী

কোনো ক্রমেই সড়কে থামছে না মৃত্যুর মিছিল। প্রতিনিয়ত ঝরে যাচ্ছে তাজা প্রাণ। নওগাঁর মহাদেবপুরে নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। অবৈধ ও লক্কর-ঝক্কর যানবাহন এর বিরুদ্ধে আইন প্রয়োগে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন তারা। গত এক বছরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ৭৮ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে বলে থানা পুলিশ ও একাধিক বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।
জানা যায়, গত ২৩ মার্চ বুধবার রাত ৮ টার দিকে নজিপুর-বদলগাছী সড়কের উপজেলার মাতাজি হাট এলাকার ভবানী নগর গ্রাম সংলগ্ন ফিড মিলের সামনে বেপরোয়া অবৈধ ট্রাক্টর ও ফিটনেসবিহীন যাত্রীবাহী মিনি বাসের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন; আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে পরিবারের নিকট মরদেহ হস্তান্তর করেছে পুলিশ। আহতরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ নিয়ে এলাকায় চলছে শোকের মাতন। ভুক্তভোগী পরিবারে কাঁন্না থামাতে পারছে না কেউই। নিহতরা হলেন- জেলার সোয়াসা গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে আব্দুর রশিদ (৩৭), একই গ্রামের জিতু পাহানের ছেলে শ্রী গিরিজ পাহান (৩৫) ও বাওনাজান আদিবাসী পাড়া এলাকার মৃত খগেন ভুঁইয়ার ছেলে নিরঞ্জন ভুঁইয়া (১২)। নিহত রশিদের চাচাতো ভাই বাদি হয়ে ট্রাক্টর ও বাস চালককে আসামি করে সড়ক পরিবহন আইনে থানায় মামলা করেছেন। দুর্ঘটনা কবলিত যানবাহন জব্দ করলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজম উদ্দিন মাহমুদ। তিনি জানান, বাসটি জেলার পত্নীতলার নজিপুর থেকে নওগাঁ শহরের দিকে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে ভবানী নগর গ্রাম সংলগ্ন সড়কে বিপরীতদিক থেকে আসা একটি ট্রাক্টর ধাক্কা দিলে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে একজনের মৃত্যু হয়। আহতদের উদ্ধার করে বদলগাছী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুইজনকে মৃৃত ঘোষণা করেন। জড়িতদের আটকে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, সম্প্রতি আবারও অবৈধ ট্রাক্টর, ভুটভুটি, ট্রলি ও ১০ চাকার ডাম্পার ট্রাকের বেপরোয়া চলাচল বেড়েছে। ক্ষত-বিক্ষত হচ্ছে গ্রামীণ সড়ক ও মহাসড়ক। এদের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ হারাচ্ছে অনেকে। প্রশাসনের নাকের ডগায় নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করেই জেলাজুড়ে ফিটনেসবিহীন যাত্রীবাহী বাস পরিচালনা করছেন মালিকরা। রহস্যজনক কারণে কোনোই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করছেন না তারা। জানতে চাইলে মহাদেবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান মিলন জানান, তদন্ত করে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।