রবিবার, মার্চ ৩, ২০২৪
ঋণখেলাপির মামলায় শীতলপুর স্টিলের ৫ পরিচালকের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
ঋণখেলাপির মামলায় শীতলপুর স্টিলের ৫ পরিচালকের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

ঋণখেলাপির মামলায় শীতলপুর স্টিলের ৫ পরিচালকের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : May 17, 2023 | চট্টগ্রাম

নিষেধাজ্ঞা প্রাপ্ত ৫ ব্যবসায়ী হলেন সীতাকুণ্ডের শীতলপুর অটো স্টিল মিলস লিমিটেডের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজিম উদ্দিন, পরিচালক মোহাম্মদ হোসেন, জানে আলম ও মাহবুব আলম।

চট্টগ্রামে শীতলপুর অটো স্টিলের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ আরো ৩ পরিচালককে প্রায় আড়াইশ কোটি টাকার ঋণখেলাপির মামলায় দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আদালত। ওয়ান ব্যাংকের চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ২৩৪ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে পরিশোধ করেননি ওই ৫ ব্যবসায়ী।

মঙ্গলবার অর্থঋণ আদালত চট্টগ্রামের বিচারক মুজাহিদুর রহমান এ আদেশ দেন। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে জন্য ইমিগ্রেশন শাখার বিশেষ পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বিষয়টি নিশ্চিত করেন আদালতের বেঞ্চ সহকারী রেজাউল করিম।

২৩৪ কোটি ৫৪ লাখ ৭৬ হাজার ৭২৭ টাকা ৩৯ পয়সা খেলাপী ঋণ আদায়ে গত ১৩ এপ্রিল পাঁচ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ওয়ান ব্যাংকের চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ শাখার পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হয়।

জানা গেছে, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের শীতলপুর এলাকার এসএএসএম কারখানা ওয়ান ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে পরিশোধ করেনি। ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বর ওয়ান ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায প্রতিষ্ঠানটিকে ২৩১ কোটি ২২ লাখ ৮১ হাজার ৩৮৯ টাকা ঋণখেলাপি ঘোষণা করে। এ ঋণের বিপরীতে সীতাকুণ্ডে ১১৫ ডেসিমেল, শীতলপুরে ৪৪ ডেসিমেল এবং চট্টগ্রাম নগরীর উত্তর কাট্টলীতে ৩৮ দশমিক ৫০ ডেসিমেল জমি বন্ধক আছে।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী রেজাউল করিম তিনি বলেন, পাঁচ ব্যবসায়ী ওয়ান ব্যাংক লিমিটেডের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ঋণ নিয়ে ঋণের বিপরীতে ব্যাংকে অতি সামান্য সম্পত্তি বন্ধক রেখেছেন। গত ১৩ এপ্রিল খেলাপি ঋণ আদায়ের দাবিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আদালতে মামলা দায়ের করে।

তিনি আরো বলেন, সোমবার (১৫ মে) ব্যাংকের পক্ষ থেকে পাঁচ ব্যবসায়ীর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করেন। গতকাল মঙ্গলবার আদালত শুনানি শেষে পাঁচজনের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিশেষ পুলিশ সুপারকে (অভিবাসন) নির্দেশ দেয় আদালত। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে কেন গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হবে না, সে বিষয়ে ৩১ মে পাসপোর্টসহ আদালতে হাজির হয়ে জবাব দিতে বলা হয়েছে।