সোমবার, জুলাই ১৫, ২০২৪
আবারও প্রাথমিক শিক্ষকদের অনলাইনে বদলি আবেদনের সুযোগ
আবারও প্রাথমিক শিক্ষকদের অনলাইনে বদলি আবেদনের সুযোগ

আবারও প্রাথমিক শিক্ষকদের অনলাইনে বদলি আবেদনের সুযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশের সময় : April 20, 2024 | শিক্ষাঙ্গন

আবারও একই উপজেলা ও থানার মধ্যে অনলাইনে বদলির জন্য আবেদন করার সুযোগ পাচ্ছেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষকরা।

অনলাইনে এ বদলির আবেদনের কার্যক্রম শুরু হবে ২২ এপ্রিল (সোমবার) থেকে। ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে এ আবেদন প্রক্রিয়া। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. তৌহিদুল ইসলামের স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২২ থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত শিক্ষকরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। প্রধান শিক্ষক ২৫ এপ্রিল সেটি যাচাই করবেন। ২৬-২৭ এপ্রিল সহকারী উপজেলা বা থানা শিক্ষা কর্মকর্তা আবেদনটি যাচাই করবেন। ২৮-৩০ এপ্রিলের মধ্যে উপজেলা বা থানা শিক্ষা অফিসের যাচাই ও অগ্রায়ণ সম্পন্ন হবে।

১-২ মে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কর্তৃক সহকারী শিক্ষকের যাচাই ও অনুমোদন এবং প্রধান শিক্ষকের যাচাই ও অগ্রায়ণ সম্পন্ন হবে। ৩-৫ মে পর্যন্ত বিভাগীয় উপ-পরিচালক দ্বারা যাচাই ও অনুমোদন করা হবে।

তবে আবেদনকারীর পছন্দক্রম অনুযায়ী বদলি হওয়ার নিশ্চয়তা নেই বলেও বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়। একাধিক আবেদনকারীর ক্ষেত্রে যোগ্য আবেদনকারীকে সফটওয়্যারের স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থাপনায় নির্বাচিত করা হয় বিধায় কোনো রকম হস্তক্ষেপের সুযোগ নেই।

শর্তসমূহ

> বদলিপ্রার্থী শিক্ষকরা সর্বোচ্চ ৩ টি বিদ্যালয় পছন্দের ক্রমানুসারে পছন্দ করবেন। তবে কোনো শিক্ষকের একাধিক পছন্দ না থাকলে শুধু একটি বা দুটি বিদ্যালয় পছন্দ করতে পারবেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বদলির আদেশ জারি হলে তা বাতিল করার জন্য পরবর্তী সময়ে কোনো আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।

> যাচাইকারী কর্মকর্তা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে ২০ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে জারিকৃত সর্বশেষ সমন্বিত অনলাইন বদলি নির্দেশিকা (সংশোধিত) ২০২৩ অনুযায়ী আবেদনকারীর আবেদন ও অন্যান্য প্রমাণাদি যাচাই করে অগ্রায়ণ করবেন।

> যাচাইকারী কর্মকর্তা সতর্কতার সঙ্গে সংযুক্ত তথ্য ও প্রমাণাদি যাচাই করবেন। যাচাইপূর্বক প্রেরণ পরবর্তী তা পুনর্বিবেচনা করার আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।

গত ৩০ মার্চ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষকদের আন্তঃউপজেলা/থানায় (একই উপজেলা/থানার ভেতর) অনলাইন বদলি কার্যক্রম শুরু হয়ে চলে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত। তবে সে দফায় সার্ভার জটিলতায় অনেকে আবেদন করতে পারেননি বলে অভিযোগ করেছে শিক্ষকরা।

আরো দেখুন:

আয়া পদে চাকরির জন্য স্কুল সভাপতির বোনের আবেদন

 

প্রতিষিদ্ধ/এসএম